সর্বশেষ সংবাদ:
কালিয়াকৈরে কারখানার খাবার খেয়ে অর্ধশতাধিক শ্রমিক অসুস্থ ধোবাউড়ায় ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রস্তুতি সভা আমি চেয়ারম্যান হবো নবাবগঞ্জে প্রেমিককে জিম্মি করে প্রেমিকাকে ধর্ষন। গ্রেফতার ৪ ধোবাউড়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য-কমপ্লেক্সে জাতীয় পতাকার অবমাননা,সচেতন মহলের তীব্র নিন্দা ভারতে বাবরি মসজিদ ভেঙ্গে রাম মন্দির স্থাপনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে ধোবাউড়ায় মানববন্ধন সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় ৫৬ পিস ইয়াবাসহ আটক ১ ধোবাউড়ায় মাস্ক বিতরণ ও বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আদিবাসী দিবস পালিত ধোবাউড়া উপজেলাকে মাদকমুক্ত করতে যুবকদের খেলাধুলায় মনোনিবেশ করাতে হবে–জালাল উদ্দিন সোহাগ ধোবাউড়ায় দলিল লেখক সমিতির নতুন কমিটি

ধোবাউড়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার দায়ীত্বহীনতায় চিকিৎসা সেবা বঞ্চিত সাধারণ মানুষ

ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ-
ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলায় সরকারি স্বাস্থ্য সেবার একমাত্র অবলম্বন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। কিন্তু করোনার এই ভয়াল থাবাতে চিকিৎসা সেবা বঞ্চিত হচ্ছে উপজেলার সাধারণ মানুষ। করোনা আর সংস্কার কাজের অযুহাতে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রাখা হয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা সেবা। ইমার্জেন্সি-আউটডোরে কর্মরত চিকিৎসকরাও দায়িত্ব পালনে অবহেলা করছেন প্রতিনিয়ত। উপজেলার রোগীদের স্বাস্থ্য সেবা অনেকটাই অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে। ৫০শয্যার এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিনিয়িত রোগীদের চাপ বাড়লেও ক্লিনিক মালিকদের সাথে যোগসাজস্যে বাড়ানো হয়নি চিকিৎসা ব্যবস্থা। ফলে ক্লিনিক আর চেম্বার নির্ভর হয়ে পড়েছে উপজেলার চিকিৎসা সেবা।সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সাধারণ রোগীদের প্রত্যাশিত চিকিৎসা সেবা নিতে এসে সেবা বঞ্চিত হয়ে পাশের ক্লিনিকে নয়তো ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যেতে হচ্ছে। অপরদিক স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা সরঞ্জামাদিরও বেহাল দশা। অজ্ঞাত কারণে এক্সরে মেশিনটি দীর্ঘদিন ধরে বিকল হয়ে আছে। হালুয়াঘাট-ধোবাউড়া আসনের সাংসদ জুয়েল আরেং রোগীদের পরিপূর্ণ সেবা নিশ্চিত করার লক্ষে একটি অ্যাম্বুলেন্স দিয়েছেন এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। কিন্ত এখানেও অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ। অতিরিক্ত টাকা না দিলে মিলছে না অ্যাম্বুলেন্স । অপরদিকে পুরাতন অ্যাম্বুলেন্সটি খোলা আকাশের নিচে রোদ আর বৃষ্টিতে ভিজে জানান দিচ্ছে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার দায়িত্বহীনতার। প্যাথলোজিকেল টেকনেশিয়ান ও পরীক্ষার ব্যবস্থা থাকার পরও নেই কোন কার্যক্রম। ফলে নিরুপায় হয়ে প্রাইভেট ক্লিনিকের দিকে ঝুঁকছেন সাধারণ রোগীরা। আবার সহায় সম্বলহীন মানুষগুলো চিকিৎসার অভাবে অনেক কষ্টে দিনাতিপাত করছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক চিকিৎসক জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আবু হাসান শাহীন এর দায়িত্বহীনতার কারণে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সাধারণ মানুষ। করোনার মহামারিতে সংস্কার কাজের অযুহাতে প্রায় ২ মাস যাবৎ বন্ধ রাখা হয়েছে রোগী ভর্তি কার্যক্রম। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন বাস্তবায়নে এদের মতো কিছু অসাধু কর্মকর্তার দায়িত্বহীনতায় চিকিৎসা-সেবা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় সচেতন মহল। এনিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আবু হাসান শাহীন নিজের দায়িত্বহীনতার কথা অস্বীকার করে বলেন, বর্তমানে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংস্কার কাজ এবং জনবল সংকটের কারণে রোগী ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে। কাজ সম্পন্ন করা হলেই আবার ভর্তি কার্যক্রম শুরু করা হবে।

 

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের অপশনে ক্লিক করুন

More News Of This Category