সর্বশেষ সংবাদ:
ধোবাউড়ায় উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে রিক্সা চালকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ধোবাউড়ায় করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ফান্ড তৈরীর লক্ষে এক জরুরী সভা বাহুবলে ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে প্রতারণা, গণধোলাই দিয়ে থানায় সোপর্দ  করোনা: অসহায়দের পাশে দাঁড়াতে নিজের জমানো টাকা দান করলেন ইবি ছাত্রলীগ নেতা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আগামী ৭ দিন ঘরে থাকুনঃ ওসি আলী আহম্মদ মোল্লা কমলগঞ্জে সিঁধেল চুরির ঘটনা ঘটেছে করোনা কভিড-১৯ প্রতিরোধে মাঠে কাজ করছে একদল তরুণ করোনা কভিড-১৯ প্রতিরোধে মাঠে কাজ করছে একদল তরুণ পঞ্চগড়ে মিথ্যা মামলায় হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করোনাঃ অসহায়দের পাশে ইবি ছাত্রলীগ সম্পাদক

মাত্র ১ ঘণ্টা সময় লাগবে মক্কা থেকে মদিনা যেতে

নিউজ ডেস্কঃ-      মক্কা থেকে মদিনার দূরত্ব প্রায় সাড়ে ৪০০ কিলোমিটার। এ দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে সময় লাগবে মাত্র এক ঘণ্টা বা তার কিছু বেশি। অল্প সময়ে মক্কা-মদিনায় যাতায়াত নিশ্চিত করতে সৌদি সরকার দ্রুতগতির ট্রেন লাইন স্থাপনের নতুন প্রকল্প নিয়ে আসছে। খবর আরব নিউজ।

মক্কা-মদিনার যাতায়াতে উচ্চগতিসম্পন্ন হারামাইন হাইস্পিড রেলপথ আরো আগেই স্থাপন করা হয়েছে। এ ট্রেনের গতিকে আরো ৩০০ কিলোমিটার বাড়ানোর প্রকল্প নিয়ে নতুন করে কাজ শুরু করেছে।

সৌদি প্রেস এজেন্সির তথ্য মতে, আরব নিউজ জানায়, নতুন প্রকল্পের ট্রেনের গতি থাকবে প্রায় ৪০০-৪৫০ কিলোমিটার। এ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে পবিত্র নগরী মক্কা থেকে মদিনায় যেতে সময় লাগবে মাত্র এক থেকে দেড় ঘণ্টা।

উচ্চগতির এ রেল যোগাযোগ ব্যবস্থায় হজ, ওমরা ও দর্শনার্থীরা সহজেই মক্কা ও মদিনায় যাতায়াত করতে পারবেন। দীর্ঘ সময় নিয়ে আসা-যাওয়ার অবসান হবে।

প্রকল্প ব্যবস্থাপনায় জড়িত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে জানা যায়, ‘কিং আবদুল্লাহ ইকোনমিক সিটি স্টেশন ও মদিনার মধ্যে যাত্রা সর্বোচ্চ গতিতে পৌঁছাবে। ফলে জেদ্দা ও মদিনার কিং আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং মক্কা-মদিনার মধ্যে দেড় ঘণ্টায় ভ্রমণ সম্পন্ন করা সম্ভব হবে।

দ্রুতগতির ট্রেনের সবগুলো স্টেশনেই ভ্রমণকারীদের জন্য বিজনেস ক্লাসের লাউঞ্জ, গণপরিবহন ব্যবস্থা, হেলিকপ্টার ল্যান্ডিং স্টেশন, পর্যাপ্ত পার্কিং সুবিধা, সিভিল ডিফেন্স স্টেশন, মসজিদ এবং আন্তর্জাতিক মানের শপিংমলসহ ভ্রমণকারীদের প্রয়োজন পূরণে থাকবে সার্বিক ব্যবস্থাপনা।

৪৫০ কিলোমিটার জুড়ে এ রেলপথ পরিচালিত হবে বৈদ্যুতিক ব্যবস্থায়। মক্কা থেকে মদিনা পর্যন্ত থাকবে পাঁচটি স্টেশন। সব স্টেশন থেকেই যাত্রীরা এ ট্রেনে ভ্রমণের সুযোগ পাবেন।

উল্লেখ্য, বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে এ রেলপথটির উদ্বোধন করেছিলেন। হজ ও ওমরাহ পালনকারীদের সেবার মান বাড়াতেই বাদশাহ এ প্রকল্প গ্রহণ করেছিলেন। রেলসংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, এটি সৌদি আরবের বৃহত্তম পরিবহন প্রকল্প।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের অপশনে ক্লিক করুন

More News Of This Category