সর্বশেষ সংবাদ:

ধোবাউড়ায় ইসলামিয়া টেকনিক্যাল বিএম কলেজে পরিক্ষা দিতে পারেনি শতাধিক শিক্ষার্থী

ধোবাউড়া প্রতিনিধিঃ-  ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় ইসলামিয়া টেকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজে পরীক্ষা দিতে না পেরে হতাশ হয়েছে প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী। সদ্য সমাপ্ত জেএসসি পরিক্ষার সাথে অনুষ্ঠিত নবম শ্রেণির পরিক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা ছিল তাদের। কিন্তু পরিক্ষার পূর্বের দিন কলেজে এসে প্রবেশ পত্র পায়নি শিক্ষার্থীরা। এনিয়ে তাদের মাঝে চরম হতাশা ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায় একজন শিক্ষার্থীরও নিবন্ধন করেনি কলেজ কর্তৃপক্ষ। শির্ক্ষাথীরা জানায় তারা বছরের শুরুতে ভর্তি ফি বাবদ ১ হাজার টাকা ও নিবন্ধন বাবদ ২ হাজার টাকা দিয়ে  ভর্তি হয়েছে। এরপর থেকে নিয়ম অনুযায়ী ক্লাসও করেছে তারা। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ কলেজ কর্তৃপক্ষ সহজ ভাবেই ভালো ফলাফল করার আশ্বাস দিয়ে কারিগরি শাখায় ছাত্র ছাত্রীদের প্রত্যেকের কাছ থেকে ভর্তি ফি এবং নিবন্ধন ফি নিয়েছে।। বছর শেষে ছাত্রছাত্রীরা যখন প্রবেশপত্র নিতে আসে তখনই বাধেঁ ঝামেলা। কলেজের অধ্যক্ষ শিক্ষার্থীদের হাতে প্রবেশপত্র দিতে পারেনি। এনিয়ে ছাত্রছাত্রীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হলে বিভিন্নভাবে শিক্ষার্থীদের বোঝানোর চেষ্টা করে অধ্যক্ষ। এমনকি পরিক্ষা না দিয়ে পাশ করার কথাও বলেছে তাদের।ছাত্রীদেরকে অন্য স্কুলের অধীনে পরীক্ষা দেওয়াবে বলে আশ্বাসও দেয়।কিন্তু শিক্ষার্থীদের ক্ষোভের  বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করতে নিজেরা প্রশ্ন তৈরী করে জেনারেল শাখায় পরিক্ষা দেওয়াবে বলে পরিক্ষা নেয় কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি কোন কোন শিক্ষার্থী কথা বলতে  চাইলে শিক্ষার্থীদের হুমকি ধমকিও দেন অধ্যক্ষ। এ ব্যাপারে ইসলামিয়া ট্যাকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজের  অধ্যক্ষ আজিজুল হকের কাছে জানতে চাইলে তিনি নিবন্ধন না হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন  একজনকে আমি দায়িত্ব দিয়েছিলাম সে সময়মত কাজটি না করায় এমনটি হয়েছে। পরে আমি নিজও চেষ্টা করেছি কিন্তু পারিনি।তবে টাকা নেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন অনেকেই ৩ হাজার টাকা দেয়নি,কমও দিয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার শফিউল আলম ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাফিকুজ্জামান জানান বিষয়টি তাদের জানা নেই, তবে এমন ঘটনা ঘটে থাকলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের অপশনে ক্লিক করুন

More News Of This Category